সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বালাগঞ্জে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি শুরু



ফাইল ছবি

বর্ষা এবং শীতের মাঝামাঝি সময়ে প্রকৃতিতে আসে শরৎ। শরৎ কালে প্রকৃতির পরিবর্তনটা বেশ চোখে পড়ার মতো। আকাশের কালো মেঘ সরে গিয়ে গ্রীস্মের গুমোট কেটে প্রকৃতিতে দেখা দেয় হালকা কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের আভাস। বাতাসে বয়ে বেড়ায় শিউলি ফুলের গন্ধ, কাশফুল ফোটে মাঠের দ্বারে কিংবা শহর প্রান্তে। আর ঠিক তখনই বোঝা যায়, মর্তে আসছেন দেবীদুর্গা। দেবীর আগমনকে কেন্দ্র করে ভক্তকূলে শুরু হয় ব্যস্ততা। পূজার দিন যতই ঘনিয়ে আসে, ততই ব্যস্ততা থাকে প্রতিমা কারিগর, আয়োজক, কসমেটিক্স ও বস্ত্র বিক্রেতাদের মাঝে।

এবার ও পূজাকে কেন্দ্র করে তৈরী  হচ্ছে দুর্গা, সরস্বতী, লক্ষী, কার্তিক ও গনেশের মূর্তি। এগুলোকে আকর্ষনীয় করে তুলতে দিনরাত সমান তালে কাজ করে যাচ্ছেন বালাগঞ্জের প্রতিমা শিল্পীরা। বালাগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সাংবাদিক রজত চন্দ্র দাশ ভুলন জানান, বালাগঞ্জে এবার সর্বমোট ২৯ টি পূজা মন্ডপ রয়েছে। তিনি আরোও জানান, চলতি বছর বালাগঞ্জ উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে ৩ টি ব্যক্তিগত সহ ২৯ টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

মন্ডপ গুলোর মধ্যে উপজেলার পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নে ব্যক্তিগত ২টি ও সার্বজনীন ৩টি সহ মোট ৫ টি, বোয়ালজুড় ইউনিয়নে মোট ৫ টি, দেওয়ানবাজার ইউনিয়নে মোট ১টি, পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নে মোট ৪টি, বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নে ব্যক্তিগত ১টি ও সার্বজনীন ৯টি সহ মোট ১০ টি এবং পূর্ব গৌরীপুর ইউনিয়নে মোট ৪টি পূজা মন্ডপে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে, শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে বালাগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও যেকোন অনাকাঙ্খিত দূর্ঘটনা মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আবদুল হক। তিনি বলেন – দুর্গাপূজা উপলক্ষে সেচ্ছাসেবক দল গঠন করা হয়েছে, এছাড়াও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে বিশেষ কন্ট্রোল রুম থাকবে।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!