বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ দশ জয়িতাকে সংবর্ধনা প্রদান



জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে হতাশাকে পেছনে ফেলার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেছা ইন্দ্রিরা এমপি।

তিনি বলেন, ঘরে বসে থেকে জয়ী হওয়া যায় না। হতাশাকে পেছন ফেলতে হবে। মানুষের জীবনে চলার পথে বাধা আসবেই। তাই বলে থেমে থাকা যাবে না। জয়ী হতে চাইলে নারীদের ঘর থেকে বের হতে হবে। পুরুষের পাশাপাশি নারীরা যত অগ্রসর হবে, দেশ ততই উন্নত হবে।

বুধবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে রংপুর আরডিআরএস মিলনায়তনে রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ ১০ জয়িতাকে সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

বেগম ফজিলাতুন নেছা ইন্দ্রিরা বলেন, যাঁরা বাঁধাকে ডিঙ্গিয়ে সামনে এগিয়ে যাবার জন্য সব সময় লড়াই করেছেন আজকে তাঁরাই জীবন যুদ্ধে জয়ী। এ যুদ্ধ কারো জন্য থেমে থাকে না। যাঁর সামনে এগিয়ে যাবার স্বপ্ন ও সংকল্প থাকবে, তাঁরাই সংগ্রাম করে এগিয়ে যাবে। এক্ষেত্রে নারীদের আরো এগিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রাণালয়ের সচিব কামরুন নাহার, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুন নেছা, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ প্রমুখ। এতে সভাপতিত্ব করেন রংপুর বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার কেএম তারিকুল ইসলাম।

দৈনিক রংপুরে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ শীর্ষক এই আয়োজনে রংপুর বিভাগের আট জেলা থেকে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৪০ জনকে নির্বাচিত করা হয়। প্রত্যেককে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

এরপর নির্বাচিত ৪০ থেকে সেরা ১০ জয়িতাকে নির্বাচিত করা হয়। এদের মধ্য থেকে চূড়ান্ত পর্বে রংপুর বিভাগের শ্রেষ্ঠ জয়িতা হিসেবে ৫ জনকে সম্মাননা স্মারক, উত্তরীয় ও সনদ প্রদান করা হয়। এর আগে প্রতিমন্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এমপি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডিএনএ স্ক্রিনিং ল্যাব পরিদর্শন করেন। এ সময় রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!