শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৮ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ওমিক্রন: বৃটেনে আক্রান্ত ২৩, পাবলিক ট্রান্সপোর্টে মাস্ক না পরলে জরিমানা



বৃটেনে আবারও মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন থেকে দেশটির মানুষকে সুরক্ষা দিতে এমন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সরকার বলছে, টিউব কর্মীরা লন্ডনে মুখোশের নিয়ম ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ক্র্যাকডাউনের অংশ হিসাবে ২০০ পাউন্ড থেকে ৬ হাজার ৪০০ পাউন্ড পর্যন্ত জরিমানা করতে পারবেন। ওমিক্রন করোনাভাইরাস বৈকল্পিক প্রতিক্রিয়া হিসাবে দোকান, শপিংমল, নেইল সেলুন, ব্যাংক, পোস্ট অফিস, হেয়ারড্রেসার এবং পাবলিক ট্রান্সপোর্ট- এ গত মঙ্গলবার থেকে মাস্ক বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। প্রথম বার মাস্ক না পরলে ২০০ পাউন্ড, দ্বিতীয়বার না পরলে ৪০০ পাউন্ড, তৃতীয়বার না পরলে ৮০০ পাউন্ড এবং চতুর্থবার না পরলে ৬ হাজার ৪০০ পাউন্ড পর্যন্ত জরিমানা করা হতে পারে।

লন্ডনের মেয়র সাদিক খান বলেছেন, যে সব যাত্রী মুখে মাস্ক পরতে ব্যর্থ হবেন তাদের জরিমানা দিতে হবে। আমরা চাই, সবাই সরকারি নিয়ম মেনে চলুন। প্রতিদিন ইংল্যান্ড সহ ইউকে-তে উদ্বেগজনকহারে নতুন স্ট্রেইনের নতুন নতুন কেস শনাক্ত করা হচ্ছে। এমন অবস্থায় সরকার মাস্ক বাধ্যতামূলক করে। সরকারের ঘোষণার পর টিএফএল-এর প্রায় ৫০০ জন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাকে বৃটিশ ট্রান্সপোর্ট পুলিশের সমর্থন ছাড়াই সম্মতি নিশ্চিত করার চেষ্টা করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। গত ১৯শে জুলাইয়ের আগে মোটামুটিভাবে বলতে গেলে ৮৫% যারা পাবলিক ট্রান্সপোর্ট ব্যবহার করেন তারা মুখে মাস্ক পরেছিলেন। ১৯শে জুলাইয়ের আগে প্রায় ২০০০ জনকে জরিমানা করা হয়েছিলো। তবে নিয়ম কিছুটা নমনীয় হওয়াতে মুখে মাস্ক ছাড়াই যাত্রীরা যাতায়াত করছেন। যার ফলে নতুন ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে গেছে।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!