বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রবাসী বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর আদর্শ উপজেলা সমিতির নির্বাচন – ২০১৮

প্রবাসী বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর আদর্শ উপজেলা সমিতির নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে



ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে প্রবাসী বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর আদর্শ উপজেলা সমিতির নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে। সকাল ১০.০০ ঘটিকা হতে ভোট গ্রহণ শুরু হওয়া এই নির্বাচনের ভোটার সংখ্যা প্রায় ৭ হাজার।  

ভোট কেন্দ্রে মিডিয়া অবজার্ভার হিসেবে আসা দর্পণ সম্পাদক মো. রহমত আলী বলেন, সকাল ১০.০০ ঘটিকায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে, চলবে বিকাল ৬.০০ঘটিকা পর্যন্ত। শুরুতে সব পক্ষের এজেন্টদের সহ অন্যান্যদের নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার শাহ্ মুনিম ভোট গ্রহণ শুরু করেন। সারিবদ্ধভাবে ভোটারগণের উপস্হিতিতে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

প্রায় ৩০ বছরের ও বেশি পুরনো এই সংগঠনটি দেশের শিক্ষা, অসহায় গরীবদের সাহায্য, রাস্তা-ঘাট সংস্কার সহ বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডে নিরবে দীর্ঘকাল ধরে কাজ করে যাচ্ছে।

এবারের নির্বাচনে দুটি প্যানেল রয়েছে। যার একটি হচ্ছে, সফিক-কুদ্দুছ-জিলু পরিষদ। তাঁদের নির্বাচনী প্রতিক হচ্ছ – ঘর। অন্য প্যানেলটি হচ্ছে কুদ্দুছ-আহাদ-শাবুল পরিষদ। তাঁদের নির্বাচনী প্যানেল হচ্ছে – সানফ্লাওয়ার। উভয় প্যানেলেরই রয়েছে প্রায় ভিন্ন ভিন্ন নির্বাচনী অঙ্গিকারনামা।

ঘর প্যানেলের সভাপতি পদপ্রার্থী জনাব সফিক উল্লাহ মিছলু তাঁর নির্বাচনী অঙ্গীকারনামা – ১. বালাগঞ্জ- ওসমানীনগর বেকারদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ ২. যুক্তরাজ্যে অধ্যায়নরত দুই উপজেলার ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য  প্রচলিত মেধাভিত্তিক পদক প্রদান চালু রাখা ৩. বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে গৃহহীনদের মধ্যে নির্মাণ প্রকল্প গ্রহন ও ৪. বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরে বিভিন্ন স্থানে গরীব ও অসহায়দের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ সহ আর বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে তা বাস্তবায়নের পূর্ণ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

তেমনি সানফ্লাওয়া প্যানেলের সভাপতি পদপ্রার্থী জনাব আব্দুল কুদ্দুছ শেখ তাঁর প্যানেলের নির্বাচনী অঙ্গীকারনামা – ১. স্থায়ী অফিস বা বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর ভবন প্রতিষ্ঠা করার জন্য অর্থ সংগ্রহ করে ভবন প্রতিষ্ঠা করা ২. সংগঠনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন শহরে বসবাসরত বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরবাসীকে সংগঠনের সাথে দৃঢ় ভাবে সম্পৃক্ত করার জন্য কার্যক্রম বিস্তৃত করা ৩. বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর এলাকার অসহায়, বৃদ্ধ ও গরীব মানুষের চক্ষুসেবা প্রদানের বিনামূল্যে চক্ষু শিবিরের আয়োজন করা ৪. গরীব অসহায় মানুষের ফ্রি চিকিৎসা সেবার জন্য একটি হাসপাতালের লক্ষ্যে কাজ করা ও ৫. বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর এলাকার প্রবীন সমাজকর্মীদের আজীবন সম্মাননা প্রদান সহ আরও বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে তা বাস্তবায়নের পূর্ণ অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

উভয় প্রার্থী-ই নির্বাচন সফল ভাবে সম্পন্ন হওয়ার ক্ষেত্রে সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এবং নির্বাচনে যে কোন ফলাফল মেনে নেওয়ার মানসিকতা প্রকাশ করেন।

এদিকে এই নির্বাচন প্রসঙ্গে সমিতির সাবেক সভাপতি জনাব আজাদ বক্ত চৌধুরী বলেন, প্রবাসে আমাদের বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর বাসীর এমন একটি মহতি সংগঠন আছে যা সত্যিই আনন্দের। এই ধরণের সংগঠনের মাধ্যমে আমরা একে অন্যের সাথে ঘনিষ্টভাবে কাজ করার সুযোগ পেয়ে থাকি। মিলে মিশে এলাকার সমস্যা নির্ণয়ে ভূমিকা রাখার সুযোগ পেয়ে থাকি। প্রবাসি বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর সমিতি অতীতে এলাকায় কল্যাণমুখী কাজ করেছে, ভবিষ্যতেও নতুন নির্বাচিত কমিটি যাঁরা আসবে তাঁরাও ভালো ভালো কাজ করে এলাকাকে সমৃদ্ধ করবে এমনটাই প্রত্যাশা।

বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর এডুকেশন ট্রাস্টের সেক্রেটারি কবি ও সমাজকর্মী মিজানুর রহমান মিরু বলেন – ভোট দিতে এসেছি। মানুষের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করছি। মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে ভোট দিচ্ছে। এটি একটি মহতি সংগঠন। দেশে নিরবে অনেক কল্যাণমুখী কাজকর্ম করে যাচ্ছে সংগঠনটি। এবারের নির্বাচনে যাঁরা নির্বাচিত হবেন তাঁরা ও এই কল্যাণমুখী কর্মকান্ড অব্যাহত রাখবেন বলে আমার বিশ্বাস। বরং কোন ক্ষেত্রে আরও বেশি করবেন এমনটাই প্রত্যাশা।

সাধারণ ভোটার হিসেবে ভোট দিতে আসা কমিউনিটি ব্যাক্তিত্ব শামিম আহমদ বলেন, এই ধরনের নির্বাচন অনেকটা উৎসবের ন্যায়। দূর-দূরান্ত থেকে এলাকার মানুষজন আসেন। যাঁদের সাথে বছরের পর বছর দেখা হওয়ার সুযোগ থাকেনা। কিন্তু এমন উপলক্ষ্যে তাঁদের সাথে দেখা হয়। তাছাড়া এমন মহতি সংগঠন দেশে ব্যাপক কল্যানমুখী কাজকর্ম করে থাকে।  এবারের নির্বাচনে যাঁরা নির্বাচিত হবেন তাঁরা অতীতের ন্যায় সমান কল্যানমুখী কাজ অব্যাহত রাখবেন এমনটাই প্রত্যাশা।

তাছাড়া সাধারণ ভোটার হিসেবে আরও ভোট দিতে আসাদের মধ্যে হাবিবুর রহমান, সেবুল মিয়া, শামিম মিয়া, সাইফুল আমদ, দিলওয়ার হোসেন, আবুল মিয়া সহ সবাই বালাগঞ্জ-ওসমানীনগর আদর্শ সমিতির দীর্ঘায়ু কামনা করে এই নির্বাচনে যাঁরা নির্বাচিত হবেন তাঁরা অন্যবারের তুলনায় আরও ব্যাপক আকারে এলাকার উন্নয়নে কল্যাণমুখী কাজে অবদান রাখবেন এমনটাই প্রত্যাশা করেন। বিশেষ করে তাঁদের নির্বাচনী অঙ্গীকারনামা পূর্ণ করবেন এমন বিশ্বাস রাখেন।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!