সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বালাগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণকারীদের শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসীর আন্দোলন অব্যাহত



বালাগঞ্জের শিওরখাল খায়রুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির ছাত্রীর ওপর পাশবিক নির্যাতনের ঘটনার প্রতিবাদ ও জড়িত ধর্ষণকারীদের শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসীর সম্মিলিত আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে।

৬ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) বিকালে দেওয়ান বাজার ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে স্থানীয় মোরারবাজার-মাদ্রাসা বাজার সড়কে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে স্থানীয় রাজনীতিক, জনপ্রতিনিধি, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসী অংশগ্রহণ করেন । এবং এ ন্যক্কারজনক ঘটনার সাথে জড়িত সকল অপরাধীদের গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবি জানান।

উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের মধ্যে বক্তৃতা করেন জামিয়া ইসলামিয়া হোসাইনিয়া গহরপুর মাদ্রাসার মুহতামিম হাফিজ মাওলানা মুসলেহুদ্দিন রাজু, শাহ সুলতান (রহ.) মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা নুমানুল হক চৌধুরী, দেওয়ান আব্দুর রহিম হাইস্কুল এন্ড কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আফম শামীম, গভর্নিং বডির সদস্য এনায়েতুর রহমান খান রাজু, কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান, খায়রুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা ফয়জুর রহমান, নর্থইস্ট বালাগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ মো. মোস্তফা মিয়া, ছমিরুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মিজানুর রহমান পংকি, দেওয়ান বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শামসুল আলম, সিলেট জেলা পরিষদের সদস্য লোকন মিয়া, সমাজকর্মী এডভোকেট জুয়েল আহমদ, হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, মো. দুদু মিয়া, এমএ মালেক, মাহমুদ আলী কাচা, সাবেক ইউপি সদস্য নেছাওর আলী, মাওলানা আজমান আলী মইনুল ইসলাম সালেহ, আছলম খান, তোফায়েল আহমদ সুহেল, জিয়াউল হক পান্না, বাবরু মিয়া, হারুন মিয়া, মুহিব উদ্দিন, আফছার আহমদ, আখতার আহমদ, আব্দুর রকিব, কাওছার আহমদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে জামিয়া ইসলামিয়া হোসাইনিয়া গহরপুর মাদ্রাসা, হযরত শাহ সুলতান (রহ.) মাদ্রাসা, দেওয়ান আব্দুর রহিম হাইস্কুল এন্ড কলেজ, নর্থইস্ট বালাগঞ্জ কলেজ, ছমিরুন্নেছা উচ্চ বিদ্যালয়, দেওয়ান বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ছমিরুন্নেছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আল-ফালাহ একাডেমি, খায়রুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসার, পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নবাসী, আব্দুল আজিজ মাসুক ফাউন্ডেশন, নশিওরপুর জাগরণী যুব সংঘ, খন্দকার বাজার খুদ্দামুল কোরআন পরিষদ, মাদ্রাসার বাজার যুব সমাজ, নবজাগরণ সমাজ কল্যাণ সংস্থা, বড়জমাত পূর্ব পাড়া যুব সমাজ সমবায় সমিতি, গহরপুর ব্লাড ফাইটার্স, মাদ্রাসা বাজার ব্লাড ডোনেশন গ্রুপ, আল সালামী মেডিসিন সেণ্টার, মাদ্রাসাবাজার ব্যবসায় সমাজ, বৃহত্তর খন্দকার বাজার এলাকাবাসী, বৃহত্তর শিওরখাল এলাকাবাসী ও পশ্চিম গৌরীপুর ইউনিয়নবাসী প্রভৃতি ব্যানারে শত শত সচেতন নাগরিকরা অংশগ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, বালাগঞ্জের শিওরখাল খায়রুন্নেছা মহিলা মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণির ছাত্রীর গত ২২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পাশের রুমের চাচার ঘরে বেড়াতে যায়। সেখান থেকে ফেরার পথে উৎপেতে থাকা ৫/৬জন যুবক ঘরের বারান্দা থেকে তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে গনধর্ষণ চালায়। এ বিষয়ে ২৩ নভেম্বর রাতে ভিকটিমের পিতা বাদি হয়ে বালাগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ০৮। তারিখ ২৩ /১১/২০১৮। মামলায় শিওরখাল গ্রামের আব্দুল করিম তালুকদারের ছেলে আব্দুল আহাদ (২৫) ও একই গ্রামের ইউপি সদস্য আইয়ুব আলীর ছেলে আজই (৩২) সহ অজ্ঞাত আরও ৪জনকে আসামী করা হয়। এদের মধ্যে আব্দুল আহাদ ও আজই মিয়া, পুলিশী অভিযানে গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে রয়েছে। এবং বাকী আসামিরা এখনো পলাতক আছে।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!