শুক্রবার, ৭ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রথমবারের মতো একই মঞ্চে কুয়াকাটার তিন সহোদর ভাই



এম এ মাজেদ চট্টগ্রাম থেকে: চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী জিরি মাদ্রাসায় গত শুক্রবার কুয়াকাটার তিন আপন ভাই একই মঞ্চে মাহফিলে বয়ান করেছেন। অন্যান্য বছর জিরি মাদ্রাসায় দুইদিন ব্যাপী বার্ষিক সভায় একদিন মাওলানা হাফিজুর রহমান ছিদ্দীক অন্যদিন বয়ান করতেন মুফতী হাবিবুর রহমান মিছবাহ। কিন্তু এ বছর প্রথমে ঠিক হওয়া তারিখ নির্বাচনের কারণে পরিবর্তন হওয়ায় দুজনই শেষদিনে সিডিউল পান। শেষদিনের মূল অধিবেশনে (জুমার বয়ান) বয়ান করেন মুফতী হাবিবুর রহমান মিছবাহ। হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে আত্মশুদ্ধি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বয়ান রাখেন তিনি। এর সঙ্গে যোগ হয় ছোট সহোদর মুফতী মাহফুজুর রহমান জাবের। তিনি বয়ান করেন আজ সকাল সাড়ে নয়টায়।

মাওলানা হাফিজুর রহমান ছিদ্দীকের বাদ মাগরিব বয়ান করেন। মাওলানা ছিদ্দীক কবর আজাব নিয়ে হৃদয় বিগলিত করা বয়ান পেশ করেন। জুমার পর থেকে ময়দানে লোকজন কমতে থাকলেও মাওলানা ছিদ্দীক বাদ মাগরিব বয়ানে বসার পর থেকে লোকজনের উপস্থিতি বাড়তে থাকে।
একই দিনে কুয়াকাটার তিন সহোদর একই স্টেজে বয়ান করার খবর এলাকায় প্রচার হলে এলাকাবাসীর আগ্রহ ও কৌতুহল বেড়ে যায়। জানা যায়, তিন ভাই এই প্রথম কোনো স্টেজে একই দিনে বয়ান করবেন।
জিরি মাদরাসার প্রিন্সিপাল বুজুর্গ আলেম আল্লামা শাহ মুহাম্মাদ তৈয়্যব সাহেব তাদের তিনভাইকে যথেষ্ট স্নেহ ও গাইড করে থাকেন। তাদের গর্বিক পিতা জনাব মোসলেম মুসুল্লী মুছাকেও ভালোবাসেন। আল্লামা শাহ তৈয়্যবের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয় চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠানটি। প্রাচীনতম এই মাদরাসায় ১১২ তম বার্ষিক সভা ছিল আজ। আল্লামা শাহ মুহাম্মাদ তৈয়্যব মাওলানা আবরারুল হক রহ. এর একজন বিশিষ্ট খলীফা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে তার হাজার হাজার ভক্ত মুরীদান উপস্থিত হন এই সভায়।
মাওলানা খোবায়েব ও মাওলানা হোসাইন আহমদের পরিচালনায়, দুই দিনে বয়ান পেশ করেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, আল্লামা আজিজুল হক আল মাদানী, মুফতী মিজানুর রহমান সাঈদ, ড. আ ফ ম খালিদ হোসাইন-সহ দেশের খ্যাতিমান ওয়ায়েজীনে কেরাম।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!