বুধবার, ৫ অক্টোবর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২০ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ওয়েলস অ্যাসেম্বলিতে ‍‘বাংলাদেশ এ গোল্ডেন জার্নি টু ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত



সাজিয়া স্নিগ্ধা : যুক্তরাজ্য ভিত্তিক গবেষণামূলক প্রতিষ্ঠান স্টাডি সার্কেলের আয়োজনে গত ২২ জানুয়ারি (মঙ্গলবার) বৃটেনের ওয়েলসের রাজধানী কার্ডিফের ঐতিহ্যবাহী ওয়েলস অ্যাসেম্বলিতে ‍‘বাংলাদেশ এ গোল্ডেন জার্নি টু ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

ওয়েলস অ্যাসেম্বলির হেলথ এন্ড সোশ্যাল সার্ভিসের ডেপুটি মিনিষ্টার জুলি মরগানের সহযোগিতায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রথমেই তরুণ রাজনীতিবিদ মাসুদা আলী উপস্থিত অ্যাসেম্বলি মেম্বারদের পরিচয় করিয়ে মঞ্চে ডেকে নেন। হেলথ এন্ড সোশ্যাল সার্ভিসের ডেপুটি মিনিষ্টার জুলি মরগানের স্বাগত বক্তব্যর পরেই স্টাডি সার্কেলের ইউকের চেয়ারপার্সন সৈয়দ মোজাম্মেল আলীর সভাপতিত্বে এবং সমন্বয়ে পরিচালিত হয় আলোচনা ও প্রশ্ন উত্তর পর্ব।

সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ মোজাম্মেল আলী বলেন, গত ১০ বছরে বাংলাদেশে ব্যপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। এমন কোন খাত, এলাকা , অঞ্চল, শহর নেই যেখানে উন্নয়নের ছোঁয়া পৌঁছায়নি। মানুষের জীবনযাত্রার আমূল পরিবর্তন হয়েছে। কিন্তু বিদেশী এবং প্রবাসীদের কাছে সে উন্নয়ন বার্তা সঠিকভাবে পৌঁছায়নি। আর সে কাজটিই স্টাডি সার্কেল শুরু করেছে। প্রবাসীদের এবং আমাদের বন্ধু রাষ্ট্রের কাছে তুলে ধরছে স্টাডি সার্কেল। ইতোমধ্যে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট, ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমপি সহ ওয়েলস অ্যাসেম্বলি সদস্যদের কাছে বাংলাদেশের প্রতিটি খাতের উন্নয়ন চিত্র নিয়ে স্টাডি সার্কেলের প্রকাশনা পৌঁছে দেয়া হয়েছে। ওয়েলস অ্যাসেম্বলিতে আয়োজনের মাধ্যমে ওয়েলস পার্লামেন্টের সদস্যদের কাছে বাংলাদেশ নিয়ে তাঁদের ভাবনা এবং প্রশ্ন জানার জন্য এ আয়োজন করা হয়েছে।

সেমিনারে ব্রিটেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনিম বাংলাদেশের বিগত ১০ বছরের উন্নয়ন ও আগামীদিনের সরকারের উন্নয়নের নানা পরিকল্পনার চিত্র তুলে ধরে বলেন, নারীর ক্ষমতায়ন সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যান্য দেশের জন্য উন্নয়নের নজির স্থাপন করেছে। বিভিন্ন খাতে সম্প্রতি বাংলাদেশের উন্নয়নকে ‘গোল্ডেন ডেভেলপমেন্ট’ হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলো বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে। প্রবাসীদের সহযোগীতার লক্ষ্যে সরকার সব সময় ইতিবাচক। তিনি আইটি সহ বিভিন্ন সেক্টরে বিনিয়োগ করার জন্য সবার প্রতি আহবান জানান।

সেমিনারে ডেপুটি মিনিষ্টার এবং চীফ হইপ জেইন হাট, অ্যাসেম্বলি মেম্বার জেনি রার্থবন, অ্যাসেম্বলি মেম্বার মোহাম্মদ আসগর, বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, বার্মিংহামের সহকারী হাইকমিশনার নাজমুল হক, স্টাডি সার্কেলের গবেষক সাজিয়া স্নিগ্ধা, কাউন্সিলর দিলওয়ার আলী, গবেষক আনসার আহমেদ উল্লাহ ও জামাল আহমদ খান বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে কমিউনিটি লিডার সুলতান মাহমুদ শরীফ, ব্যবসায়ী আলহাজ জালাল উদ্দিন, মানবাধিকার সংগঠনক আব্দুল আহাদ চৌধুরী, আসম মিসবাহ, আলহাজ্ব আনোয়ার আলী, শেখ মোহাম্মদ তাহির উল্লাহ, সাইফুল ইসলাম নজরুল, ওয়েলস বাংলা নিউজের এডিটর ও এটিন বাংলার সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর, চ্যানেল এস এর সাংবাদিক হারুন অর রশিদ, নাজিম করিম, শামিম আহমেদ, ইয়াদিয়া জামান, ওয়াসিমুজ্জামান সহ ওয়েলসের ১৫ জন অ্যাসেম্বলি মেম্বার, শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, উন্নয়নকর্মী এবং কমিউনিটির বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে ওয়েলস অ্যাসেম্বলি মেম্বারবৃন্দ বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের ভৃয়শী প্রসংশা করে বলেন, বাংলাদেশ শুধু খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়নি ব্রিটেনেও বিপুল পরিমান খাদ্য ও পোষাক সামগ্রী রপ্তানি করছে। বাংলাদেশের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করার সাথে সাথে আগামীতে দ্বিপক্ষীয় চুক্তির মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং ওয়েলসের মধ্যকার পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়নে সহযোগিতার ও প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!