মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ড বনাম ক্রোয়েশিয়া : দ্বিতীয় সেমিফাইনালে কে এগিয়ে?



রাশিয়ার লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আজ মুখোমুখি হচ্ছে ক্রোয়েশিয়া ও ইংল্যান্ড। কোচ গ্যারেথ সাউথগেটের অধীনে ২৮ বছর পর সেমিফাইনালে পা দিয়েছে ইংল্যান্ড। তাদের লক্ষ্য ৫২ বছর পর আসরের ফাইনালে আবার পা রাখা।

১৯৬৬ সালে প্রথমবার ফাইনালে পা রেখেই বিশ্বকাপ ফুটবলে তাদের একমাত্র শিরোপা জিতেছিল ইংল্যান্ড। অন্যদিকে ক্রোয়েশিয়া দ্বিতীয়বারের মত পা রেখেছে আসরের সেমিফাইনালে।

ইংল্যান্ড-ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি লড়াইয়ের ইতিহাসটা কেমন? খুব বেশি ম্যাচ এই দুই দল যদিও খেলেনি, কিন্তু তারপরেও ইংল্যান্ড-ক্রোয়েশিয়ার খেলা মানেই নাকি ঘটনা!

তবে আজকের ম্যাচটিকে নানা দিক থেকে হ্যারি কেন-লুকা মদ্রিচ দ্বৈরথ বলে চিহ্নিত করা যায়। বিশ্বকাপ শুরুর কয়েক দিন আগে ফরোয়ার্ড হ্যারি কেনের কাঁধে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড তুলে দেন ইংল্যান্ডের কোচ গ্যারেথ সাউথগেট।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে আজ লুকা মদ্রিচের মুখোমুখি হতে হবে হ্যারি কেইনকে। ছবি: টুইটার

তিনিই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেয়া সর্বকনিষ্ঠ অধিনায়ক। অধিনায়কের দায়িত্বের পাশাপাশি আরো একটি দায়িত্ব রয়েছে বর্তমানে ২৪ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ডের ওপর। ইংলিশদের আক্রমণভাগের নেতৃত্বটাও দিতে হচ্ছে তাঁকে। তার ওপর কোচ ও সমর্থকদের আস্থার প্রতিদানটাও বেশ ভালোভাবেই দিচ্ছেন হ্যারি কেন। তিউনিসিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের প্রথম ম্যাচেই জোড়া গোল করেছেন তিনি। তার জোড়া গোলেই ম্যাচটি ২-১ গোলের ব্যবধানে জিতেছে ইংলিশরা। এরপরের ম্যাচে যেন আরো বেশি অপ্রতিরোধ্য ছিলেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক। পানামার বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ওই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছেন তিনি। তবে বেলজিয়ামের বিপক্ষে বিশ্বকাপে গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে হ্যারি কেনকে বিশ্রামে রেখেছিলেন কোচ গ্যারেথ সাউথগেট। দ্বিতীয় রাউন্ডে কলম্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিতেও ১টি গোল করেছেন এ ফরোয়ার্ড। তবে সুইডেনের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচটিতে গোল পাননি তিনি। সব মিলিয়ে ৬ গোল নিয়ে এখন রাশিয়া বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ গোলদাতাদের তালিকায় সবার ওপরে রয়েছেন হ্যারি কেন। নিশ্চিতভাবে তিনিই জিততে যাচ্ছেন রাশিয়া বিশ্বকাপের গোল্ডেন বুট। কেননা তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেলজিয়ামের ফরোয়ার্ড রোমেলু লুকাকু তার চেয়ে ২টি গোল কম করেছেন। উল্লেখ্য, এটিই হ্যারি কেনের প্রথম বিশ্বকাপ।

ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন যখন গোল্ডেন বুট জয়ের দৌড়ে এগিয়ে আছেন। অন্যদিকে রাশিয়া বিশ্বকাপের গোল্ডেন বল জয়ের দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ। রাশিয়া বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ২টি গোল করার পাশাপাশি ২টি মূল্যবান অ্যাসিস্টও করেছেন এই মিডফিল্ডার। এ ছাড়া দুর্দান্ত পারফরমেন্সের কারণে ৩টি ম্যাচে জিতেছেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। হ্যারি কেনের জন্য এটি প্রথম বিশ্বকাপ হলেও রাশিয়া বিশ্বকাপের আগে আরো ২টি বিশ্বকাপে খেলেছেন লুকা মদ্রিচ। তবে ২০০৬ ও ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত ওই ২টি বিশ্বকাপে আলো ছড়াতে পারেননি মদ্রিচ। রাশিয়া বিশ্বকাপেই দ্যুতি ছড়চ্ছেন তিনি।

তাই ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নামার আগে ফর্মের তুঙ্গে রয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন এবং দুর্দান্ত পারফরমেন্স দিয়ে মাঝ মাঠ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মদ্রিচ। তাই আজ মদ্রিচ-হ্যারি কেন দ্বৈরথ দেখার প্রতীক্ষায় ফুটবল প্রেমীরা।

এদিকে, ইংলিশদের ফরোয়ার্ড লাইনআপে হ্যারি কেন ছাড়াও মার্কাস রাশফোর্ড, ড্যানি ওয়েলবেক, রাহিম স্টার্লিং,আর জ্যামি ভার্ডিরা রয়েছেন, তবে এখনো বিশ্বকাপে কোনো গোলের দেখা পাননি এরা কেউ। তাই হয়তো নিজেদের সেরাটা দেয়ার এখনো বাকী বলে, ম্যাচের আগে মনে প্রশান্তি খুঁজে ফিরছেন ইংলিশ সমর্থকরা।

ইনজুরিতে দল থেকে ছিটকে সিমে ভার্সালকো। ছবি : গেটি ইমেজ

অন্যদিকে, ক্রোয়েশিয়া  শিবিরে কিছুটা হতাশা। ইনজুরিতে দল থেকে ছিটকে গেছেন ক্রোয়েশিয়ার ডিফেন্ডার সিমে ভার্সালকো।

তবে কিছুটা হলেও দলের জন্য স্বস্তি, নিষেধাজ্ঞা পেতে গিয়েও ফিফার কাছ থেকে মৌখিক সতর্কতা পেয়ে সেমিফাইনালের ছাড়পত্র পেয়ে গেছেন ডিফেন্ডার ডোমাগোজ ভিদা।

কোয়ার্টার ফাইনালে রাশিয়াকে হারানোর পর নিজেদের জয়কে ইউক্রেনের জয় বলে খেলার মাঝে রাজনীতি নিয়ে আসায় সেমিফাইনাল খেলা নিয়ে সংশয় ছিল এই ডিফেন্ডারের।

আজকের ম্যাচ পূর্ব পরিসংখ্যানের দিকে নজর দিলে দেখা যাচ্ছে – এ নিয়ে আটবারের মত মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দুই প্রতিপক্ষ। এর আগের সাত দেখায় অবশ্য ইংল্যান্ডের পাল্লাটা ভারী বেশী।

ইংলিশদের চার বারের বিপরীতে ক্রোয়েশিয়া জিতেছে দুটি ম্যাচ। আর ড্র হয়েছে একটি। বড় কোনো আসরে একবারই মুখোমুখি হয়েছিল দু’দল। ২০০৪ সালে ইউরোতে সেবার ওয়েইন রুনির জোড়া গোলে জিতেছিল ইংল্যান্ড।

তবে চার বছর পরেই ওয়েম্বলিতে সেটার প্রতিশোধ নেয় ক্রোয়েশিয়া ২০০৮ ইউরো বাছাইপর্বে ৩-২ গোলে ইংলিশদের হারিয়ে প্রতিযোগিতা থেকে বিদায় করে। তাই বলা যায় আজকের ম্যাচে দুই দলের সামনেই সমান সুযোগ।

ফ্রান্সে ১৯৯৮এর বিশ্বকাপের পর এই প্রথম সেমিতে ওঠা ক্রোয়েশিয়া চাইবে না তাদের ফুটবল ইতিহাসে প্রথমবারের মত ফাইনালে ওঠার হাতছানি উপেক্ষা করতে। বিপরীতে ৫২ বছরের অপেক্ষা আর ২৮ বছর পর আবারো নিজেদের চেনা মঞ্চে এসে জেফ হার্স্ট, ববি মুর, ববি চার্লটনদের মত ইতিহাসে অমর হয়ে থাকার সুযোগটা হাতছাড়া করতে চাইবেন না হ্যারি কেন, ডেলি আলি, জেসি লিনগার্ড, বা মার্কাস রাশফোর্ডরা।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!