বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ডর বিদায়, ইতিহাস গড়ে ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া



ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে গেলো ক্রোয়েশিয়া। এ জয়ের ফলে ১৯৯৮ সালে তৃতীয় স্থান অর্জনকারী ক্রোয়েশিয়া প্রথমবারের মতো ফাইনালের টিকেট অর্জন করল। ২০ বছর আগে ফ্রান্স বিশ্বকাপে স্বাগতিকদের বিপক্ষে সেমিফাইনালে হেরে সেই বার তৃতীয় হয়েছিল ক্রোয়েটরা। ১৫ জুলাই লুজনিয়াকির ফাইনালে ফ্রান্সকে হারাতে পারলে কোচ জাতকো ড্যালিচের শিষ্যরা শিরোপা জয়ের সঙ্গে সঙ্গে দুই দশক আগের হতাশার বদলা নিতে পারবে।

বিশ্বকাপ ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া। উদ্‌যাপনটা তো এমনই হবে। ছবি: রয়টার্স

এদিকে অর্ধশত বছর আগে একবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হতে পারা ইংলিশদের জন্য এবার আরেকটি সুযোগ ছিল। ইংলিশরাও আশায় বুক বেঁধে ছিল। তাঁদের ছেলেরা শিরোপা নিয়েই বাড়ি ফিরবে। কেনরা বাড়ি ফিরছেন ঠিকই কিন্তু খালি হাতে। শিরোপার এত কাছে এসেও দূরে চলে যেতে হলো তাঁদের। অথচ আর একটা ম্যাচ জিতলেই ফুটবল বিশ্বকাপের মুকুট নিজেদের করে নিতে পারত ইংল্যান্ড। তা আর হলো না। এখন ক্রোয়েশিয়া-ফ্রান্স ফাইনাল ম্যাচটি মাঠের বাইরে বসেই দেখতে হবে ইংলিশদের।

স্বপ্ন ভেঙ্গে যাওয়ার পর অনেক সমর্থক একে অপরকে জড়িয়ে ধরে এভাবে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। ছবি : গেটি ইমেজ

যদিও খেলার ৫ মিনিটেই গোল দিয়ে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। ফ্রি কিক থেকে ইংল্যান্ডের হয়ে এই একমাত্র গোলটি করেন কিয়েরান ট্রিপিয়ের। ম্যাচের শুরুতেই দুর্দান্ত ফ্রি কিক থেকে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে নেন ট্রিপিয়ের।

দুর্দান্ত ফ্রি কিক থেকে ট্রিপিয়ের গোল। ছবি : বিবিসি স্পোর্ট

অন্যদিকে, ক্রোয়াটরা গা ঝাড়া দিয়ে উঠে বিরতির পর। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৮ মিনিটে সমতাসূচক গোল করে ক্রোয়েশিয়া। সমতায় ফেরে ইভান পেরিসিচের গোলে। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা ১-১ গোলে ড্র থাকায় অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে গড়ায় খেলা। এই অতিরিক্ত সময়ে সুযোগ বুঝে ১০৯ মিনিটে জয়সূচক গোল করে ক্রোয়েশিয়া। পেরিসিচের হেডে বাড়ানো বলটি বাঁ-পায়ের কোনাকুনি শটে ইংল্যান্ডের জালে পাঠিয়ে ক্রোয়েশিয়াকে জয় এনে দেন মারিও মানজুকিচ।

মারিও মানজুকিচের গোলেই জয় পেয়েছে ক্রোয়েশিয়া। ছবি: রয়টার্স

তবে ম্যাচে বেশ কিছু সুযোগ নষ্ট করে ইংল্যান্ড। অধিনায়ক হ্যারি কেন ও সেই সব সুযোগ নষ্ট করা থেকে বাদ যাননি। ২২ মিনিটে ইংলিশ অধিনায়ক গোল ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ হাতছাড়া করেন। ২৯ মিনিটে এসে আবারও গোলের সুযোগ নষ্ট করে ইংল্যান্ড। এবারও কেনের মিস। এরপর প্রতি আক্রমণে উঠে আসে ক্রোয়েশিয়া। শেষ পর্যন্ত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে।

এখন ১৫ জুলাই ফাইনালে ফ্রান্সকে হারাতে পারলেই ফুটবল বিশ্ব নতুন চ্যাম্পিয়ন পাবে।

 

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!