মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বেদানার রসের উপকারিতা



শুধু স্বাদ নয়, পুষ্টিকর পথ্য হিসাবেও বেশ জনপ্রিয় বেদানা বা ডালিম। কিন্তু আদৌ কতটা উপকারী ডালিমের রস? কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

১. ডালিম অ্যান্টি-অক্সিড্যান্টে ভরপুর
অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট এমন উপাদান যা দূষণ এবং সিগারেটের ধোঁয়ার মতো পরিবেশগত বিষাক্ত পদার্থ থেকে কোষকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট জিনের ক্ষয় প্রতিরোধ এবং মেরামত করতে সহায়তা করে। ফলে ক্যানসারের ঝুঁকি কমে।

২. প্রস্টেটের সমস্যা কমাতে কাজে আসতে পারে ডালিম
কিছু গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ডালিমের রসে প্রাপ্ত কিছু কিছু উপাদান, বিভিন্ন ক্যানসার সৃষ্টিকারী রাসায়নিক পদার্থের চলাচলে বাঁধা দেয়। বাঁধা দেয় ক্যানসারের বিস্তারেও। আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্রস্টেট ক্যানসারের বৃদ্ধিকে ধীর করতে কাজে আসতে পারে ডালিমের রস। কিন্তু এ কথা মাথায় রাখতে হবে যে ওষুধ নয়, পথ্য হিসাবেই উপকারী এটি।

৩. হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা কমাতে সহযোগিতা করতে পারে ডালিম
আয়ুর্বেদিক শাস্ত্রে ডালিমের রস ব্যবহৃত হয়ে আসছে হাজার হাজার বছর ধরে। কোষের জারণঘটিত চাপ কমাতে কার্যকর পথ্য হিসেবে পরিচিত ডালিমের রস। কারও কারও মতে, ডালিমের রস কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। বিশেষ করে যাদের বংশগত ভাবে হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা আছে তাঁদের নিয়মিত ডালিমের রস খাওয়ার পরামর্শ দেন কেউ কেউ।

তবে মনে রাখতে হবে, সব খাবার সবার সহ্য না-ও হতে পারে। তাই নিয়মিত কোনও খাবার পথ্য হিসাবে খাওয়ার আগে নিতে হবে চিকিৎসকের পরামর্শ। খবর আন্দবাজার পত্রিকার।

শেয়ার করুন:

প্রিন্ট করুন প্রিন্ট করুন

error: Content is protected !!